1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট মেম্বার হলেন মান্নান-সাদিক এমপি সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পার্কে নারী নির্যাতন: তিন বখাটে গ্রেপ্তার কানাডাকে হারিয়ে স্বস্তির জয়ে টিকে রইল পাকিস্তান ভারতে এই তীব্র গরমে আরও ৮ জনের মৃত্যু নারায়ণগঞ্জে ফ্ল্যাটের বারান্দায় ঝুলন্ত কলেজ ছাত্রের মরদেহ রূপার চেইনের জন্য ধর্ষণের পর শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে: র‌্যাব সিলেট টিলা ধসে মৃত্যুর ঘটনায় জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটি লেবাননের বিপক্ষে হেরে বিশ্বকাপ বাছাই থেকে শেষ বাংলাদেশ বাংলাদেশের নাটকীয় পরাজয়ে তামিম-মরকেল-ওয়াকারদের নিয়ম পুনর্বিবেচনায় রোনালদোর অনন্য কীর্তির দিনে পর্তুগালের দারুণ এক জয়

শোকের মাসে শাল্লা আ.লীগ কার্যালয়ে বিএনপি পরিবারের যুবকের জন্মদিন পালন!

  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১, ১০.২৫ এএম
  • ৪১৬ বার পড়া হয়েছে

মুশফিকুর রহমান::
সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বিএনপি পরিবারের এক যুবকের জন্মদিন উৎসবমুখর পরিবেশে পালন করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ট পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের শাদামাটা জন্মদিন পালনের পরপরই ৫ আগস্ট বৃহষ্পতিবার ইকবাল তালুকদার নামের এক যুবকের জন্মদিন ঘটা করে পালন করা হয়। এসময় স্বেচ্ছাসেবক লীগ দাবিদার দাবিদার ওই নেতা সবাইকে দলীয় কার্যালয়ে মিষ্টিমুখ করান এবং আনন্দ উদযাপন করেন। পরবর্তীতে জন্মদিন পালনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ক্ষুব্দ হয়ে ওঠেন। তারা এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কোন প্রকৃত আওয়ামী লীগার এভাবে দলীয়
কার্যালয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে শোকের মাসে জন্মদিন পালন করতে পারেননা বলে তারা মন্তব্য করেছেন। নেতাকর্মীরা ইকবাল তালুকদারকে ছাত্রদলের সাবেক নেতা হিসেবেও চিহ্নিত করেছেন। তবে তিনি তা অস্বীকার করেছেন। জন্মদিন পালনে তার সঙ্গে উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক নেতা শামীম মিয়াও ছিলেন।
জানা গেছে শাল্লা উপজেলার গুঙ্গিয়ারগাওয়ের অনিকেত বাসিন্দা ইকবাল তালুকদার নামক ওই যুবকের পরিবারের সবাই বিএনপির প্রতিষ্ঠিত রাজনীতিক। তার মামা ইছাক মিয়া ছিলেন শাল্লা উপজেলায় বিএনপির প্রভাবশালী নেতা। আরেক মামা হাফিজুর রহমান উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি। আরেক মামা আব্দুর রাজ্জাক উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক। বাইরের জেলার বাসিন্দা ইকবাল তালুকদার এক সময় ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে নেতাকর্মীরা জানান। এছাড়াও তিনি তার পারিবারিক রাজনৈতিক আদর্শের কারণেই অতীতে তার মামাদের সঙ্গে বিএনপি রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন বলে জানান এলাকাবাসী। দুই বছর আগে এলাকার যোদ্ধাপরাধ মামলায় রাজাকার জাকির হোসেনকে জেল হাজতে নেওয়া হলে ইকবালসহ এলাকার চিহ্নিত বিএনপি ও সাম্প্রদায়িক পরিবারের কিছু কৌশলী লোক আওয়ামী লীগের সঙ্গে ঘেষতে শুরু করে। ইতোমধ্যে ইকবাল উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটিতে সদস্য হিসেবে স্থান করে নিয়েছেন। আপাদমস্তক সাম্প্রদায়িক একজন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ইকবাল তালুকদার সম্প্রতি সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্রের শিকার উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও যুবলীগ নেতা অরিন্দম চৌধুরী অপুকে ফাঁসানোর সঙ্গে যুক্ত বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। গত ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে হামলার পর ইকবাল তালুকদার শুধু নীরবই ছিলেননা হেফাজতের পক্ষে প্রচারণা চালিয়েছেন। ওই সময় যারা সম্প্রদায়িকতাবিরোধী প্রচারণা চালিয়েছে তাদেরকে হুমকি ধমকিও দিয়েছিল ওই ব্যক্তি। তিনি এখনো শাল্লা উপজেলা সদর গুঙ্গিয়ারগাঁওয়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানী ও গুজব ছড়ানোর কাজে নিয়োজিত বলে অভিযোগ আছে।
এদিকে বিএনপি পরিবারের একজন অখ্যাত যুবক কিভাবে নব্য আওয়ামী লীগার সেজে উপজেলা আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দকে নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে শোকের মাসে মিষ্টিমুখ করিয়ে জন্মদিন পালন করলো এ ঘটনায় ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতৃবৃন্দ। তাছাড়া জাতির জনকের জ্যেষ্ট সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের জন্মদিন পালনের পরই কিভাবে তার জন্মদিন ঘটা করে দলীয় কার্যালয়ে পালন করা হলো এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে।
৫ আগস্ট ইকবাল তালুকদারের জন্মদিনে উদযাপনে ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুবল চন্দ্র দাস, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা দিপু, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক নওশের মনির, সাবেক ছাত্রদল নেতা শামীম মিয়াসহ আরো বেশ কিছু নেতা।
জন্মদিনে উপস্থিত উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুন আল কাউছার বলেন, আমরা উঠে যাওয়ার সময় ইকবাল হঠাৎ আনন্দ চিত্তে নিজেই কয়েক কেজি মিষ্টি নিয়ে এসে উপস্থিত হয়ে জানায় আজ তার জন্মদিন। তাই আমরা সরলমনে তার জন্মদিন পালন করেছি। তবে এভাবে শোকের মাসে শেখ কামালের জন্মদিনের পর এমন একজন ব্যক্তির জন্মদিন পালন করা উচিত হয়নি। আমরা লজ্জিত।
ইকবাল তালুকদারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আল আমিন চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে নিন্দনীয় এই ঘটনায় আমিও নেতাকর্মীদের মতো ক্ষুব্দ। আমরা জাতির জনক, বঙ্গমাতা, জননেত্রী শেখ হাসিনা, শেখ রাসেলসহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের জন্মদিন দলীয়ভাবে সাদামাটাভাবে করি। শোকের মাসে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কেক কেটে মিষ্টি বিতরণ করে কখনো নিজের জন্মদিন পালন করেননা। কিন্তু একজন অখ্যাত ব্যক্তির জন্মদিন কিভাবে আমাদের কার্যালয়ে মিষ্টি বিতরণের মাধ্যমে উদযাপন করা হলো আমি বিষ্মিত। এ ঘটনায় নিন্দা জানাই। যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019-2024 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!