1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ১২:২১ পূর্বাহ্ন

আগামী ফসল ঘরে তোলার আগ পর্যন্ত সহায়তা পাবে হাওরের কৃষক: প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ২ মে, ২০১৭, ৩.৩২ পিএম
  • ১৪৪ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার::
সুনামগঞ্জের প্রত্যন্ত উপজেলা শাল্লার দুর্গত হাওর পরিদর্শন ও কৃষকদের সহায়তা দিতে এসে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, হাওরের ফসলরক্ষা বাধে কোন গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাঁধ তৈরি এবং দেওয়ায় পরীক্ষা নীরিক্ষা করে কি ধরনের বাঁধ দেওয়া যায়, আদৌ বাঁধ প্রয়োজন কি না পরীক্ষা-নীরিক্ষা করা হবে। যথা সময়েও যথা নিয়মে যাদে বাধ তৈরি হয় সেই ব্যবস্থা নেব আমরা। অসময়ের পাহাড়ি ঢল ও বর্ষণে হাওরের কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেই ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে এখানে ছুটে এসেছি। আগামী ফসল তোলার আগ পর্যন্ত কৃষকদের সহায়তা প্রদান করা হবে।
রবিবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জের প্রত্যন্ত এলাকা শাল্লা উপজেলার শাহেদ আলী উচ্চবিদ্যালয় মাঠে পাহাড়ি ঢলে ফসলহারা কৃষকের সহজায়তা দিতে এসে ষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বেলা ১১.০৩ মিনিট থেকে ১১.৩৫ মিনিট পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী হাওরের সমস্যা, সম্ভাবনা, কৃষকদের সহায়তা, ফমল রোপনে করণীয়সহ হাওর কেন্দ্রিক নানা বিষয়ে কথা বলেন। প্রায় ৩২ মিনিটের বক্তব্যে কোন রাজনৈতিক উত্তেৎনাকরন কথা ছিলনা। ছিল ফসলহারা মানুষের প্রতি সহমমর্মিতা ও সহায়তার আশ্বাস।
সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কৃষক সহায়তা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চেšধুরী, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চেšধুরী মায়া, খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান ও স্থানীয় সাংসদ ড. জয়া সেনগুপ্তা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১০টা ৫ মিনিটে হেলিপ্টারে অবতরণ করেন।
প্রধানমন্ত্রী হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে বলেন, আমি বিল এলাকার মানুষ। পানিতে ডুবে থাকি। আপনারা হাওর এলাকার। আপনাদের কষ্ট আমি বুঝি। সেই কষ্ট নিয়েই আমি আপনাদের দেখতে এসেছি। কেবল এই ধানের উপর নির্ভর ন্ াকরে অন্যান্য ফসল ফলানোর চেষ্টা করতে হবে।
তিনি বলেন, আমি ১৯৭৫ সনের এক রাতে সব হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে এখন আপনাদের মুখে হাসি ফুটনোর কাজ করছি। হাওরের চাষীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা দুশ্চিন্তা করবেননা। আগামী ফসল ঘরে না ওাা পর্যন্ত আপনাদের সহায়তা অব্যাহত রাখব। আগামী ফসলের জন্য বিনামূল্যে সার, বীজ ও কৃষি উপকরণ দেওয়া হবে। অব্যাহত রাখা হবে অন্যান্য কৃষি ভর্তুকি। প্রধানমন্ত্রী প্রতিটি ইউনিয়নে ওএমএ সুবিধা পৌছে দেবার নির্দেশনা দেন মঞ্চে থাকা খাদ্য মন্ত্রীকে। পাহাড়ি ঢল ও বর্ষণে যত খাবার নষ্ট হয়েছে তা সরবাহের নির্দেশ দেন মন্ত্রীকে। তিনি কৃষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বিদেশি সাহায্য আমরা নেবনা। আমরা ভিক্ষার জন্য হাত পাতবনা। কেউ যাতে ভিক্ষা না করে তাদের সহায়তার জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।
আগামীতে যাতে সময় মতো বাধ নির্মিত হয় সেই ব্যবস্থা নেব আমরা। তিনি
হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের নানা সহায়তার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, সরকারি ব্যাংক কৃষকের ঋণের সুদ অর্ধেক মওকুফ করেছে। স্থগিত করেছে কৃষি ঋণ আদায়। আমি শোনেছি এনজিওরা হাওরের দুর্গত কৃষকদের ঋণ আদায়ে চাপ দিচ্ছে। আমি এনজিও ব্যুরোকে নির্দেশ দেব যাতে তারা ঋণের জন্য আমার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের স্থগিত করেনি।
হাওরবাসীর দীর্ঘদিনের সংগ্রামের ঐতিহ্য স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, হাওরের মানুষ প্রাকৃতি দুর্যোগের সঙ্গে যুগ যুগ ধরে যুদ্ধ করে ্িটকে আছে। প্রতিনিয়ত গোখাদ্য নিয়ে শঙ্কিত ফসলহারা কৃষকের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা আপনাদের গোখ্যাদ্যের ব্যবস্থা করব। আমি প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়কে এ নির্দেশনা দিয়েছি।
প্রায় ৩২ মিনিটের বক্তব্যে তিনি রাজনৈতিক কোন বক্তব্য দেনননি। কৃষক, কৃষি ও হাওরের অন্য্যা বিষয় এবং দুর্গতদের সহায়তা নিয়ে কথা বলেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!