1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০১:১৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
করোনায় একদিনে ভারতে মারা গেলেন ৫০ চিকিৎসক ভারতে সব রেকর্ড ভেঙে একদিনে ৪৩২৯ প্রাণহানি রোজিনাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ : স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সংবাদ সম্মেলন বয়কটের ঘোষণা দেশে বিশেষ অভিযান চালাবে ইন্টারপোল সভাপতি-সেক্রেটারি ছাড়াই শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন করলো সুনামগঞ্জ আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জে যুবলীগের আলোচনা ধর্মপাশায় বাল্য বিয়ের অভিশাপ থেকে রক্ষা পেল ২ কিশোরী দিরাইয়ে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ার জেরে স্বামীর আত্মহত্যা! প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোন অপশক্তিকেই ছাড় দেননি: এমপি মানিক তাহিরপুরে শশুর বাড়িতে এসে পানিতে ডুবে জামাইয়ের মৃত্যু

লন্ডনে মসজিদে হামলাকারীর পরিচয় প্রকাশ

  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ২০ জুন, ২০১৭, ৫.৫৬ পিএম
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেক্স::
যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের একটি মসজিদের বাইরে মুসল্লিদের উপর হামলা করা ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ। ৪ সন্তানের জনক ৪৭ বছর বয়সি ডারেন অসবোর্ন এই হামলার জন্য দায়ী বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

অসবোর্ন উত্তর লন্ডনের ফিন্সবারি পার্কের সেভেন সিস্টার্স রোডের একটি মসজিদের বাইরে নামাজ পড়ারত মুসল্লিদের উপর ভ্যান উঠিয়ে দেয়। ফলে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন ব্যক্তি নিহত এবং ১১ জন আহত হন। এই ঘটনায় পরবর্তীকালে পুলিশ তাকে আটক করে।

হতাহতদের সকলেই মুসলমান ছিলেন। ঘটনাটিকে মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে একটি সন্ত্রাসী হামলা বলে ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটিশ সরকার।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভ্যানের চালক অসবোর্ন মুসল্লিদের উপর হামলার আগে চিৎকার করে বলছিলেন, ‘আমি সব মুসলমানদের হত্যা করতে চাই।’

মসজিদের বাইরে এই হামলার পর অসবোর্নের প্রতিবেশিরা জানান, গত শনিবার অর্থাৎ হামলার আগের দিন তাকে পাব থেকে বের করা দেয়া হয়। কারণ তিনি মাতাল অবস্থায় মুসলিম সম্প্রদায়ের উদ্দেশ্যে গালাগালি করছিলেন।

পাবে নিয়মিত যান এমন এক ব্যক্তি জানান, অসবোর্ন মুসলমানদের গালি দেয়ার পাশাপাশি তাদের কিছু ক্ষতি করার কথাও বলছিলেন।

তবে হামলাকারী ব্যক্তির মা ক্রিস্টিন উল্লেখ করেন, তার সন্তান সন্ত্রাসী নয়। এমনকি মুসলমানদের প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করতেও কখনো দেখা যায়নি।

তিনি জানান, মসজিদ হামলায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে টিভি ফুটেজে তার সন্তানের ছবি দেখে তিনি আর্তনাদ করে উঠেছিলেন।

পাশাপাশি তিনি বলেন, মা হিসেবে ফিন্সবারি পার্কের প্রত্যেকের জন্য আমার হৃদয় কাঁদছিল।

এদিকে অসবোর্নের দুজন মুসলিম প্রতিবেশি জানান, তাদের প্রতি কখনো ঘৃণা প্রকাশ করতে দেখেননি অসবোর্নকে। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!