1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নূরুল হুদা মুকুটের মাতা মহিয়সী নারী সুফিয়া নূর আর নেই তাহিরপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিক টিকা উৎপাদনে সিনোফার্মের সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী অবৈধভাবে যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করলে শাস্তি : অভিবাসন আইনে পরিবর্তন রোহিঙ্গা ইস্যু : বিশ্বব্যাংকের শরণার্থীনীতি প্রত্যাখ্যান করলো বাংলাদেশ শাল্লায় নয়ন গোসাই আখড়ার গাছ কাটায় বাস্তুহারা হাজারো পাখি।। শামস শামীম শাল্লা থানার আলোচিত এসআই শাহ আলী প্রত্যাহার ছাতকে দুইদিনে করোনায় মৃত্যু ৮, আক্রান্ত ২৯ স্বজনদের তথ্য গোপনে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা আসতে পারে করোনার আরও ভয়ঙ্কর ধরন সুনামগঞ্জে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম মেয়র নাদেরের

কেন্দ্রীয় সম্পাদকের সামনে সুনামগঞ্জ ছাত্র লীগের দুই পক্ষের হাতাহাতি

  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ, ২০১৭, ৫.১৫ পিএম
  • ১১৩ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার::
সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনে প্রচারণায় অংশ নিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদকের সামনেই সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্র লীগের বিলুপ্ত কমিটির নেতাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। বৃহষ্পতিবার দুপুরে দিরাই উপজেলার কলেজ রোড এলাকায় সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ড. জয়া সেনগুপ্তার নির্বাচনী পথসভায় এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহষ্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনে প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্ত্রী আওয়ামী লীগ প্রার্থী ড. জয়া সেনগুপ্তার নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে দিরাই আসেন কেন্দ্রীয় ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন। দুপুরে একটি পথসভা চলাকালে সময় বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি ফজলে রাব্বী স্মরণ ও সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাজুল কাজীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে দুইজন হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। পরে উভয়ের সমর্থকরাও হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ায় হাঙ্গামার সৃষ্টি হয়। একে অন্যের দিকে চেয়ার ছুড়ে মারেন এবং নেতৃবৃন্দ একে অপরকে কিলঘুষি মারেন। এ ঘটনায় হতবাক হয়ে যান কেন্দ্রীয় ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইনসহ পথসভায় উপস্থিত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এসময় তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে উভয় পক্ষকে নিবৃত করার চেষ্টা করেন জেলা ছাত্র লীগের বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ চৌধুরী। কিন্তু উভয় পক্ষকে নিবৃত করতে না পেরে তিনি সরে আসেন।
জেলা ছাত্র লীগের বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ চৌধুরী বলেন, তুচ্চ বিষয় নিয়ে সভাপতি ও সাংগঠনিক সম্পাদক (বিলুপ্ত কমিটি) কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। আমি তাদের নিবৃত করার চেষ্টা করেও পারিনি। এই ঘটনা আমাদের সংগঠনের ভাবর্মূতি ক্ষুণœ করেছে।
ফজলে রাব্বী স্মরণের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!