1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২:২১ অপরাহ্ন

যে কখনো ব্যর্থ হয়নি, সে কখনো সফল হয়নি

  • আপডেট টাইম :: শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০, ১২.০৬ এএম
  • ৫৪৯ বার পড়া হয়েছে

জনি বেগম ::
জীবনে কিছু ভিলেন না থাকলে যেমন হিরো হওয়া যায় না ঠিক তেমনি সফলতার পিছনে যদি কোনো ব্যর্থতার গল্প না থাকে তাহলে সেই সাফল্যের আসল স্বাদ উপলব্ধি করা যায় না। যে মানুষটা বলে সে কখনো ব্যর্থ হয়নি, আসলে সে কখনো চেষ্টা করেনি, সে কখনও সফল হয়নি। মূলত সফলতা ব্যর্থতার সহযাত্রীই বটে। জীবনে সফল হতে হলে ব্যর্থতার গ্লানি ছাড়া সফলতার পূর্ণ স্বাদ থেকে আপনি বঞ্চিত হবেন। তাই ঢেউ যত বড় হয়, তত শক্ত করি পায়ের বাঁধন। আছড়ে পড়া ঢেউকে ফেরত পাঠিয়ে এগিয়ে যাওয়াই তো সফলতা। উদাহরণস্বরূপ বলতে গেলে, একজন নববধূ যখন ধীরেধীরে মা হতে চলে এবং কোল বেয়ে সন্তান না আসা পর্যন্ত তাকে কতরকম ব্যর্থতার শিকার হতে হয়৷ সন্তান পৃথিবীতে আসলেই তিনি সফলতার স্বাদ পেয়ে থাকেন।
সফলতা অনেক ভাবেই হতে পারে। যেমনঃ একজন সফল ব্যক্তি, একজন সফল শিক্ষার্থী, একজন সফল ব্যবসায়ী, একজন সফল আইনজীবী, ইত্যাদি হাজারো দিক রয়েছে সফলতার৷ কিন্তু সবার সফলতার পিছনে যে ব্যর্থতার গল্প থাকতেই হবে এমন কিন্তু নয়৷ আবার ব্যর্থতার ফলে যে সবাই সফল হতে পারবেন তাও কিন্তু নয়৷ আমার দৃষ্টিতে তাঁরাই আসল হিরো/সফল ব্যক্তি যারা জীবনে চলার পথে হুঁচট খেয়ে পড়ার পরও ওঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতা রাখেন৷ যারা পিছনে ফিরে না তাকিয়ে অদম্য গতিতে সামনে এগিয়ে যান সফলতা বরাবর তাদের হাতেই ধরা দেয়৷

কিন্তু কখনও কখনও ব্যর্থতা আর হতাশা আমাদের এমনভাবে ঘিরে ধরে যে, মনে হয় আর সামনে এগোনো সম্ভব নাহ্। মনে হয় সফল হওয়া একেবারেই অসম্ভব৷ কিন্তু যারা হাতের মুঠো শক্ত করে দাঁতে দাঁত চেপে ক্রমাগত তাদের স্বপ্নপূরণের দিকে এগিয়ে যায়, শত বাঁধাও তাদের হার মানাতে পারে না। প্রত্যেকটা ব্যর্থতাকে সফলতার সিঁড়ি বানিয়ে তারা এগিয়ে যেতে তাকে তাদের গন্তব্যের দিকে। কোনো বাঁধাই তাদের গন্তব্য ঠেকাতে পারে না। টম ওয়াটসনের ভাষায়, “যদি সফল হতে চাও তবে ব্যর্থতার হার দ্বিগুণ বাড়িয়ে দাও।” ইতিহাসের পাতায় চোখ রাখলেই দেখা যায় যে, সমস্ত সাফল্যের পিছনে আছে ব্যর্থতার অবদান। একবার নয়, দুইবার নয়, বারবার যারা ব্যর্থতার শিকার হয়েছেন অবশেষে একদিন তাঁরাই সফল হয়েছেন। তাই কোনো কাজে ব্যর্থ হলে সেই ব্যর্থতাকে সফলতার প্রথম সোপান হিসেবে গ্রহণ করে নিন। সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করুন৷ অজানা কোনো কাজে নিজেকে নিয়োজিত করা যে কারো জন্যই চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। কিন্তু ব্যর্থতার মোকাবিলা করা এবং কাটিয়ে ওঠার কাছে এটা কিছুই না। লক্ষ্য স্থির রেখে সামনে এগিয়ে যান সফলতা আপনার হাতেই ধরা দিবে। মানুষ পারে না এমন কোনো কাজ নেই, প্রয়োজন শুধু ইচ্ছাশক্তির।

কিন্তু বাস্তব জীবনে আমার কতটা পরিশ্রমী? মুখে যতটা বলি কাজে কি ততটা করি? অবশ্যই নাহ্! কারণ আমার বাঙালি আরামপ্রিয় অলস জাতী। আমরা জীবনে সবসময় শান্তি কামনা করি কিন্তু আমাদের মনে আদৌ স্বস্তি আছে কি না সেটাই আমাদের অজানা। সুখ আমাদের প্রয়োজন কিন্তু কষ্টের মোকাবেলা করতে আমরা নারাজ। কোনো কাজে হেরে গেলে সেই কাজের সঙ্গে লেগে থাকার পরিবর্তে আমরা আগে থেকেই আন্দাজ করে নেই ওটা আমরা পারবো না। হুঁচট খেয়ে পড়ে যাই ঠিকি কিন্তু ওঠে দাঁড়ানোর আগেই আমাদের কোমড় ভেঙে যায়। আমরা কোনো কাজের হাল ধরার আগেই হাল ছেড়ে দেই কোনো চেষ্টা না করেই। অজুহাত হিসেবে আমরা আমাদের ভাগ্যটাকে ব্যবহার করি। ঐ না পাওয়া জিনিসটা আমাদের কপালে নেই বলে চালিয়ে দেই৷ আর এটাই হয় আমাদের জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল। আমি মনে করি সফলতার প্রথম ধাপ হচ্ছে রিক্স নেয়া। সফল হতে হলে আপনাকে রিক্স নিতেই হবে। একজন ব্যর্থ আর সফল ব্যক্তির মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে, সফল ব্যক্তি কোনোকিছু জানার পরে সাথে সাথেই এ্যাকশন নেয়। আর অন্যদিকে ব্যর্থরা শুধু দেখেই যায় কিন্তু সেই অনুযায়ী কোনো স্টেপ নিতে পারে না বলে তারা জীবনে হতাশায় ডুবে থাকে। তাই ব্যর্থতার ফলে বসে না থেকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। চেষ্টা করুন, লেগে থাকুন দেখবেন ভবিষ্যৎ খুবই সম্ভাবনাময়। মনে রাখবেন, বিখ্যাত ব্যক্তিরা কেউই সফল হয়ে জন্ম নেয়নি। তারা তাদের ইচ্ছা শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়েই সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। আপনিও তাদের মতো হাল ছেড়ে না দিয়ে লেগে থাকুন। একদিন আপনিও পারবেন সেদিন আমার কথাটা মিলিয়ে নিয়েন। যারা অকৃতকার্য বা কোনো কাজে সফল হওয়ার আগেই ব্যর্থ হয়েছে সম্ভাবনা তাদের মধ্যেই বিরাজমান। যে একবার ব্যর্থ হয়নি সে বার বার সফল হওয়ার চেষ্টা করেনি। আমি সবসময় হেরে যাওয়া মানুষদের দলে। হারই মানুষকে জয়ের পথে অগ্রসর হতে অনুপ্রেরণা দেয়৷

আমি আমার জীবনের একটা অভিজ্ঞতা শেয়ার করি। আমি বরাবরের মতো একজন সফল ব্যক্তি এবং একজন ভালো স্টুডেন্ট ছিলাম। বলতে গেলে ক্লাসের টপ স্টুডেন্ট আমিই ছিলাম। সবসময় আমার রেজাল্ট খুবি ভালো হতো কিন্তু এ নিয়ে আমার কোনো এক্সট্রা আনন্দ কিংবা মাথা ব্যথা নেই কেননা সবসময় আমি ভালো রেজাল্ট করি এ আর নতুন কি। কিন্তু ক্লাসের যারা সামান্য পাস করেই আনন্দে মেতে উঠতো তাদের দেখলে আমার হাসি পেত। সামান্য পাসে এত আনন্দ পাওয়ার কি আছে আমি বুঝলাম না। তাদের দেখলে মনে হবে মহাভারত যেন জয় করে ফেলছে। অন্যদিকে আমার জীবনে কষ্ট কি বা ব্যর্থতা কাকে বলে তা আমার জানা ছিল না। আর সেজন্য বোধহয় সফলতা যে কতটা আনন্দের সেটা আমি বুঝতে পারিনি। কিন্তু সফল হওয়ার আনন্দ আর অকৃতকার্য হওয়ার বেদনা যে কি তা আমি আমার জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে উপলব্ধি করার সুযোগ পেয়েছিলাম। হোক সেটা আমার অলসতার ফল কিংবা আমার দূর্ভাগ্যবসত। ব্যর্থতার ফলে যে সফলতা কতটা সুখময় তা একজন ব্যর্থ ব্যক্তি ছাড়া অন্য কেউ ভালো করে অনুধাবন করতে পারবে না৷ সেই সময়টাতে আমি সফলতা এবং ব্যর্থতার সংঙ্গা ভালো করে আয়ত্ত করেছিলাম, যেদিন দেখলাম যারা সবসময় অকৃতকার্য স্টুডেন্ট ছিল তারা আমাকে পিছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যায়। তবে আমার কোনো আফসোস ছিল না কেননা এতদিন যেটা আমি বুঝতে পারি নি সেটা বুঝার সুযোগ হয়তো আল্লাহ্ আমাকে দিয়েছিলেন। হয়তো সেই দিনের ব্যর্থতা আমার আজকের সফলতার কারণ কিংবা ভবিষ্যতে অনেক বড় সাফল্যের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।
হয়তো আজকের ব্যর্থতা আপনারও আগামীদিনের সফলতার কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই ব্যর্থতাকে অভিশাপ না বলে আশীর্বাদ হিসেবে মেনে নিন। আর সেই আশীর্বাদ নিয়েই জীবনে বয়ে আনুন সূর্যের আলোর মতো উজ্জ্বল সম্ভবনা। মনে রাখবেন হুঁচট খেয়ে পড়া মানেই কিন্তু লজ্জার বিষয় নয় বরং যথাসময়ে ওঠে না দাঁড়ানোটাই লজ্জার।

মনে রাখবেন, রাত যত গভীর হয় প্রভাত তত নিকটে আসে। রাত শেষ হলেই শুরু হবে দিনের আলো। তাই রাত দেখে ভয় পাওয়ার কিছু নাই। ব্যর্থতার ফলে নিজের ভাঙা অংশগুলোকে জোড়া লাগাও, পরাজয় গুলোকে কাঁধে তোলো, ভুল গুলোর হাত ধরে সামনে এগিয়ে যাও। হাঁটতে থাকো, তারপর দৌঁড়াতে থাকো একদিন নিশ্চিত সঠিক গন্তব্যে পৌঁছে যাবে। মনে রাখবে যে কখনো ব্যর্থ হয়নি আসলে সে কখনও সফল হয়নি। আর পাশে কোনো হার স্বীকার করা মানুষের কাঁধে হাত রেখে এই দুটো লাইন শুনিয়ো..
দশবার পড়ো যদি, বারোবার ওঠো..
ব্যর্থতার পাথুরে ফুল হয়ে ফোটো.!(সমাপ্ত)
(লেখক: জনি বেগম, শিক্ষার্থী সুনামগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজ)

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!