1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৫:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়: সিলেট-ঢাকাসহ দেশের অধিকাংশ জেলায় বিদ্যুৎ নেই সুনামগঞ্জে বিজিবির অভিযানে ৭ লাখ টাকার অবৈধ পণ্য জব্দ আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা নারায়ণতলা সীমান্তে ২০ লাখ টাকার ভারতীয় কাপড়ের চালান আটক করেছে বিজিবি মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের আলামত না পাওয়ার পরও ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার মদনপুর দিরাই সড়কে ট্রলি মোটর সাইকেল সংঘর্ষে একজন নিহত বঙ্গবন্ধুর খুনি শাহরিয়ার রশিদের জামাতার ৭ বছর জেল অফিস সময় আরো এক ঘণ্টা বাড়ছে! ৪০০ কর্মী ছাঁটাই করবে বিবিসি নিউজ তাহিরপুর সীমান্তের দুর্গম বড়গোপ টিলায় বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করে দিলো আব্দুর রহিম মেমোরিয়াল ট্রাস্ট

সিঙ্গাপুরে আটক চার বাংলাদেশী জঙ্গিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ১২ জুলাই, ২০১৬, ৯.৫২ এএম
  • ৩৬৭ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেক্স::
জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে সিঙ্গাপুরের আদালতে দোষী সাব্যস্ত চার প্রবাসী বাংলাদেশিকে দুই থেকে পাঁচ বছরের কারাদ-াদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দেশটির একটি আদালত এই দ- ঘোষণা করেন। সিঙ্গাপুরের দৈনিক স্ট্রেইটস টাইমস অনলাইন ও বার্তা সংস্থা এএফপি এই তথ্য জানিয়েছে।
কারাদ- পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন মিজানুর রহমান (৩১), রুবেল মিয়া (২৬), মো. জাবাথ কায়সার হাজি নুরুল ইসলাম সওদাগর (৩১) ও সোহেল হাওলাদার ইসমাইল হাওলাদার (২৯)।
আসামিদের মধ্যে মিজানুরকে ৬০ মাস, রুবেল ও জাবাথকে ৩০ মাস এবং সোহেলকে ২৪ মাসের কারাদ- দিয়েছেন আদালত।
গত মে মাসের ২৭ তারিখ থেকে এই দ- কার্যকর বলে ধরা হবে। ওই দিন আসামিদের আদালতে প্রথম তোলা হয়েছিল।
সিঙ্গাপুরের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা আইনে (আইএসএ) গত এপ্রিলে ওই চার প্রবাসী বাংলাদেশি আটক হন। পরে তাঁরা আদালতে দোষ স্বীকার করেন। জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে তাঁদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়। আজ দ- ঘোষণা করলেন আদালত।
স্ট্রেইটস টাইমস বলছে, সিঙ্গাপুরের টেররিজম (সাপ্রেসিং অব ফাইন্যান্সিং) অ্যাক্টের অধীনে ছয় বাংলাদেশিকে আটক করা হয়। কারাদ- পাওয়া চারজন ওই দলেরই অংশ। অন্য দুজন হলেন জামান দৌলত (৩৪) ও মামুন লিয়াকত আলী (২৯)। বিচারের মুখোমুখি হয়ে তাঁরা আদালতে অভিযোগ অস্বীকার করেন।
আদালতের তথ্য অনুযায়ী, জঙ্গিবাদী কার্যক্রম পরিচালনায় এই দলটির অধিনায়ক ছিলেন মিজানুর। দলে মামুনের অবস্থান ছিল দ্বিতীয়। রুবেল আর্থিক ব্যবস্থাপনা দেখতেন। জাবাথ যোগাযোগ রক্ষার কাজ করতেন। জামান ও সোহেল দলের নিরাপত্তা ও যোদ্ধা অংশটির তত্ত্বাবধান করতেন। রুবেল ও জাবাথের কাছে জঙ্গিবাদী কার্যক্রমে অর্থায়নের জন্য তহবিল রাখারও অভিযোগ আনা হয়।
আদালতের তথ্যমতে, গ্রেপ্তারের সময় জাবাথের কাছে এক হাজার ৩৬০ ডলার পাওয়া গিয়েছিল। এর মধ্যে এক হাজার ৬০ ডলার তাঁকে দেন রুবেল। ছয়জন ৬০ ডলার থেকে ৫০০ ডলার পর্যন্ত চাঁদা দিয়েছেন তহবিল গঠনের জন্য।
স্ট্রেইটস টাইমস বলছে, দলটির সদস্যরা সরকার পতনের লক্ষ্যে বাংলাদেশে ফিরে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছিলেন। তাঁদের উদ্দেশ্য ছিলÍবাংলাদেশে ইসলামিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!