1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
জলাভূমি পুনরুদ্ধারের এখনি শেষ সময় ।। পাভেল পার্থ আগামী জুনে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট চালু হবে ঢাকায় জমির কাঠা সর্বোচ্চ ৭ কোটি ৭৫, নিচে ৬০ লাখ! সুনামগঞ্জ ভূমি অফিসার্স কল্যাণ সমিতির নির্বাচনে সভাপতি সোয়েল, সম্পাদক কামাল ও সাংগঠনকি সম্পাদক জহুর নির্বাচিত ধর্মপাশায় সাজাপ্রাপ্ত গরু চোর ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার শাল্লায় ধর্ষণ চেষ্টা : থানায় অভিযোগ ইরানের সামরিক স্থাপনায় ইসরায়েলের ড্রোন হামলা পাকিস্তানে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ২৮ জন ২৮ দিন পর বই পেয়ে পৃষ্ঠা ওল্টিয়ে বিস্মিত শিশুরা এসএসসি ২০০৭ ও এইচএসসি ২০০৯ ব্যাচের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদান

প্রতীকে সরগরম ভোটের মাঠ

  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২.৫৯ এএম
  • ১২২ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি ::
প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই সুনামগঞ্জের শীর্ষ প্রার্থীদের সমর্থকরা প্রচার মিছিল করেছেন। মাইকিং প্রচারণাও চলছে শহরে-গ্রামে। তৈরি পোস্টারও চলে গেছে তৃণমূলে। সেই পোস্টার শোভা পাচ্ছে হাট ঘাটের বিভিন্ন স্থানে। তবে এই শীতে মাঠ গরম করে রেখেছেন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ও বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের সমর্থকরা। প্রার্থীরা বিভিন্ন স্থানে পথসভা ও মতবিনিময় সভা করেছেন। মনোনয়ন সংক্রান্ত জটিলতা কাটিয়ে এখন রাতদিন মাঠেই কাজ করছেন প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা।
সুনামগঞ্জের ৫টি নির্বাচনী এলাকায় সকালেই প্রতীক বরাদ্দ পান প্রার্থীরা। সকল প্রার্থীর প্রতিনিধিরা এসে প্রতীক বরাদ্দের কাগজ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের কাছ থেকে তুলে নেন। প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই সুনামগঞ্জ-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের সমর্থকরা বিভিন্ন স্থানে প্রচার মিছিল করেছেন। নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে মাইকিং প্রচারণাও শুরু হয়েছে। এছাড়াও নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন স্থানে মোয়াজ্জেম হোসেন রতন নিজে দিনভর প্রচারণার পাশাপাশি তার নির্বাচনী সেলের প্রচার দল নির্বাচনী এলাকার তিনটি উপজেলা ও একটি থানায় সমন্বয় করে প্রচারণা চালান। এই আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী সাবেক সাংসদ নজির হোসেনও প্রচারণা শুরু করেছেন। তার পোস্টার ছেয়ে গেছে নির্বাচনী এলাকার সর্বত্র। এই আসনে ৫ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে মাঠে আছেন।
সুনামগঞ্জ-২ আসনে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন মহাজোট মনোনীত প্রার্থী সুরঞ্জিত পত্নী ড. জয়া সেনগুপ্তা এমপি। সোমবার থেকে দুটি উপজেলায় মাইকিং প্রচারণা শুরু করেছেন তার সমর্থকরা। তাছাড়া তিনিও বিভিন্ন স্থানে মতবিনিময় সভা করেছেন। সোমবার প্রতীক বরাদ্দের পর আনন্দ মিছিল করেছেন সমর্থকর। এই আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত নাসির উদ্দিন চৌধুরীও প্রচারণায় রাতদিন ব্যস্ত আছেন। তার নির্বাচনী এলাকার সর্বত্র পৌছে গেছে ধানের শীষের পোস্টার। মাইকিং প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কর্মীরা।
সুনামগঞ্জ-৩ আসনে শুরু থেকেই প্রচারণায় এগিয়ে আছেন মহাজোট মনোনীত প্রার্থী অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। গতকাল প্রতীক বরাদ্দের পর বিভিন্ন স্থানে আনন্দ মিছিল হয়েছে। পোস্টার মাইকিংয়ে প্রচারে মাতিয়ে রাখছেন কর্মীরা। তিনিও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুরে কয়েকটি মতবিনিময় সভা করেছেন। তার পক্ষে আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরাও মাঠে নেমেছেন। তার সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী অবশেষে মাঠে নামলেও এখনো বিএনপির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা তার পক্ষে মাঠে নামেনি। তবে গতকাল তার সমর্থকরাও পোস্টার মাইকিংয়ে প্রচারণায় নেমেছেন। এই আসনে ৬ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে আছেন।
সুনামগঞ্জ-৪ আসনে মহাজোট মনোনীত জাতীয় পার্টি প্রার্থী এডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহর সমর্থকরা বিভিন্ন স্থানে প্রতীক বরাদ্দের পরই আনন্দ মিছিল করেছেন। তবে তার পক্ষে এখনো আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে দেখা যায়নি। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অভিযোগ এডভোকেট পীর মিসবাহ এখনো তাদের সঙ্গে কোন যোগাযোগ করেননি। তার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত সাবেক হুইপ এডভোকেট ফজলুল হক আছপিয়ার সমর্থকরাও বিভিন্ন স্থানে প্রচার মিছিল করেছেন। তিনি গতকাল সোমবার সকালে তার বাসভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের নিরপেক্ষ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। এই আসনে ৭জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন।
সুনামগঞ্জ-৫ আসনে মাঠ গরম করে রেখেছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী মুহিবুর রহমান মানিকের সমর্থকরা। গতকাল সোমবার বিকেলে তারা ছাতকের বিভিন্ন স্থানে প্রচার মিছিল করেছেন। ছাতক ও দোয়ারার বিভিন্ন স্থানে মতবিনিময় সভাসহ প্রচারণা চালিয়েছেন সমর্থকরা। এই আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত বিএনপি প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরীও বিভিন্ন স্থানে প্রচারণা শুরু করেছেন। নির্বাচনী এলাকায় মাইকিং প্রচারণার পাশাপাশি পোস্টারও সাটিয়েছেন কর্মীরা। এই আসনে ৮জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন।
এদিকে প্রার্থীরা ভোটযুদ্ধে নানাভাবে প্রচারণায় নামলেও এখনো কোন প্রার্থী কারো বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গ বা প্রশাসনের পক্ষপাতিত্ব নিয়ে অভিযোগ তুলেননি কেউ।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!