1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:১০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নিয়ম বহির্ভূত ফি ফেরত দিচ্ছে সুনামগঞ্জ সরকারি এসসি গার্লস হাইস্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য ১১ দফা নির্দেশনা নাসিক প্রমাণ দিল দলীয় সরকারের অধীনেও সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব শাবিপ্রবি শিক্ষকদের সাথে সন্ধ্যায় আলোচনায় বসবেন শিক্ষামন্ত্রী অনশনের ৬০ ঘণ্টা: মুখে স্যালাইনও নিচ্ছেন না, বাড়ছে ঝুঁকি শাবিপ্রবিতে অনশন: ১৬ জন হাসপাতালে ভর্তি শাবি’র সংকটে সাস্টিয়ান সুনামগঞ্জ এর উদ্বেগ শাল্লায় ফসলরক্ষা বাঁধের কাজে দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় মামলার আসামি হলেন চেয়ারম্যান বৃটিশ মন্ত্রী-এমপির উপস্থিতিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, র‌্যাব সৃষ্টি করেছে, প্রশিক্ষণ দিয়েছে আমেরিকা-বৃটেন! বাংলাদেশসহ ১০৫ দেশ করোনার পিল কম দামে পাচ্ছে

ধর্মপাশায় নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল অবাধে বিক্রয়

  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭, ১০.১৫ এএম
  • ১২৮ বার পড়া হয়েছে

সাইফ উল্লাহ::
সুনামগঞ্জের হাওর অঞ্চলের এক জনপদের নাম ধর্মপাশা। উপজেলায় বিভিন্ন হাটবাজারে সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল অবাধে বিক্রয় হচ্ছে। জানা যায়, উপজেলার ৩৭ টি হাওরে কারেন্ট জাল ও মুশুরি জাল দিয়ে মাছ শিকার করা হচ্ছে। এই সকল কারেন্ট জাল ধর্মপাশা উপজেলা সদর, বাদশাগঞ্জ বাজার, মধ্যনগর বাজার, গাছতলা বাজার, গোলকপুর, রাজাপুর, জয়শ্রী, মহেষখলা বাজার সহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় করা হয়। সব চেয়ে বেশী বিক্রয় হয় সাপ্তাহিক হাঠের দিনে। অনুস্দ্ধানে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার ধর্মপাশা উপজেলা সদর, রবিবার বাদশাগঞ্জ বাজার, শনিবার মধ্যনগর বাজার, মঙ্গলবার মহেষখলা বাজারে লাখ লাখ টাকার কারেন্ট জাল বিক্রয় হয়। কারেন্ট ও পোনা জাল দিয়ে অবাধে মাছ নিধন করা হচ্ছে এতে করে মাছের বংশ দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। মো. রহুল আমিন (৩৮) জানান, আমরা হাওর পাড়ের মানুষ মাছ আর ভাত আমাদের প্রধান খাবার কিন্তু নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ শিকার করে মাছের বংশ শেষ করে দিচ্ছে কিছু অসাধু মাছ শিকারী। বর্ষা কালে মাছের জন্য হাহাকার হতে হচ্ছে কোথাও ভাল মাছ পাওয়া যাচ্ছে না, যাহা শিকার হচ্ছে তাহা চলে যায় বিভিন্ন শহরে। এর জন্য দায়ী কারেন্ট ও পোনা বা মুশুরি জাল বিক্রয়ীতা। এই জাল যদি ক্রয়-বিক্রয় বন্ধ করা না যায় তাহলে মাছের বংশ একে বারে শেষ হয়ে যাবে। তাই সরকার ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন যাতে করে সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল অবাধে বিক্রয় বন্ধ করা জন্য। প্রতি কেজি কারেন্ট জাল ৪-৫ হাজার টাকা বিক্রয় করে। ব্যবসায়ী গণ এতে করে বিক্রেতা হাটবাজারের ইজারাদারকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে বাজারে বিক্রয় কারার সুযোগ সৃষ্টি করে দেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পাশাপাশি পুলিশ যদি হঠাৎ আসেন তাহলে ব্যবসায়ীদের সর্তক করেদেন যাতে করে পুলিশ আসার সঙ্গে সঙ্গে কারেন্ট জাল না পাওয়া যায়। সুশিল সমাজ মনে করেন যে ভাবেই হোক নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল বিক্রয় বন্ধ করা হলে দেশ ও জনগণের উপকার হবে বলে আশাবাদ প্রকাশ করেন। মধ্যনগরের মো. জসিম উদ্দিন (৪০) জানান, হাটবাজার ইজারাদার গণ থানা পুলিশের যোগসুত্রে কারেন্ট জাল হাটে ক্রয় বিক্রয়ের সুযোগ পাচ্ছে। কারেন্ট জাল ব্যবসায়ী আবুল কাশেম (৩৭) বলেন, কত সাংবাদিক আইল গেল কেউ কিছু করতে পারেনা, তা ছাড়া কাগজে লিখে কোন লাভ হয় না অযথা সময় নষ্ট করেন, বাড়ীতে যান গিয়ে গৃহস্থের কাজ করেন। মধ্যনগর বাজারের স্থানীয় নেতা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেদককে জানান, মধ্যনগর বাজারে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল বিক্রয় হয়। ধর্মপাশা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মো. মোসাহিদ তালুকদার বলেন, আমি শুনেছি বাদশাগঞ্জ ও মধ্যনগর বাজারে অবাধে সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ক্রয় বিক্রয় হচ্ছে এ ব্যাপারে মাসিক সমন্বয় সভায় আলোচনা করা হবে। যদিও কিছু সংখ্যক মানুষ পোনা ও মশুরী জাল দিয়ে মাছ শিকার করে এতে মাছের বংশ দিন দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে। অবৈধ জাল বিক্রয় ও পোনা মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!