1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সরকারের আলোচনার প্রস্তাব, গঠিত হয়েছে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি সুনামগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক শিবির সভাপতি সুমেলসসহ তিন শিবির নেতা গ্রেপ্তার ছাত্রলীগকে স ন্ত্রা সী সংগঠন হিসেবে বিবেচনার প্রশ্নে যা বলছে যুক্তরাষ্ট্র সুনামগঞ্জে কিশোর গ্যাং ও অ প রা ধ প্র তি রো ধ বিষয়ে নিয়ে আলোচনা সভা সিলেটেও স্বেচ্ছায় পদ ছাড়ছেন ছাত্রলীগ নেতারা সিলেটের বন্যা : যুক্তরাজ্য সহায়তা দিচ্ছে ৪ কোটি টাকা কোটা: ‘ও ভাইও হামাক এনা বোন কয়া ডাকো রে’, সাঈদের বোনের আহাকারি বিকল্প নৌপথে সেন্ট মার্টিনের যাত্রীবাহী ট্রলারে আবারও গুলি বর্ষণ বৃহস্পতিবার সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা দেয় কোটা আন্দোলনকারীরা শনির আখড়ায় পুলিশের ওপর হামলা ঘিরে সংঘাত সৃষ্টি, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ছয়জন

টঙ্গিতে জেএমবির প্রশিক্ষণ আস্তানায় র‌্যাবের অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার

  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই, ২০১৬, ৪.৫৫ এএম
  • ৪৮৭ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেক্স::
টঙ্গির চেরাগআলী কলেজগেটের জেএমবির আস্তানায় অস্ত্র চালানো, বোমা তৈরির প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন জঙ্গিবাদ বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান। বৃহস্পতিবার সকালে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।
এর আগে একই দিন ভোর ৪টার দিকে চেরাগআলী কলেজগেট এলাকার জেএমবির ওই আস্তানায় অভিযান চালায় র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় সংগঠনের দক্ষিণাঞ্চলের আমিরসহ চারজনকে আটক করে হয়। আটককৃতরা হলেন জেএমবির দক্ষিণাঞ্চলের আমির এবং ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষক মো. মাহমুদুল হাসান, আশিকুর আকবর আবেশ, নাজমুল সাকিব এবং শরীয়ত উল্লাহ শুভ।
মাহমুদ খান জানান, জেএমবির কার্যক্রমকে সুসংঘটিত করার জন্য এবং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে বাসাটি ব্যবহারের জন্য তারা এক মাস আগে বাসাটি ভাড়া নেয়। এখানে বিভিন্ন গ্রুপে ভাগ করে আট থেকে ১০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো। যেমন- শারীরিক প্রশিক্ষণ, অস্ত্র চালানোর প্রশিক্ষণ, বোমা বানানোর প্রশিক্ষণ, তথ্য সংগ্রহ ও আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণসহ আরও বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ।
তিনি আরো জানান, আটক মাহমুদুল বোমা তৈরিতে পারদর্শী ছিল। তার বাসা সিরাজগঞ্জ জেলায়। সে অনেক আগে থেকেই জেএমবির সঙ্গে যুক্ত হয়। এসআই ইব্রাহিম হত্যা ও হোসনি দালানে বোমা হামলায় যারা সম্পৃক্ত ছিল তারা মাহমুদুলের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিল বলেও জানান তিনি। এখানে শক্তিশালী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলার চেষ্টা করছিল তারা।
মাহমুদ খান বলেন, আটক আবেশ বেশ কয়েক বছর ধরে জেএমবির সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত। সে রংপুরের প্রাইম মেডিক্যাল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। ফাস্ট এইড সম্পর্কে ধারণা দিয়ে থাকত এবং চিকিৎসা দিত সে। শুভ যশোরের এমএম কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং সাকিব একটি মাদ্রাসার ছাত্র। সে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে ঢাকায় এসেছিল, যোগ করেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019-2024 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!