1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৮:১২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মাদ্রাসাছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা শুক্রবারের পর দেশজুড়ে আবারো বৃষ্টিপাতে সম্ভাবনা ছাতকে নোয়ারাই ইউপি নির্বাচনে রাজারগাঁও স্কুল কেন্দ্রে ভোটগণনায় কারচুপির অভিযোগে বিক্ষোভ ফোন হাতে না পাওয়ায় আমি দুঃখিত, তবে শঙ্কিত নই ইজিবাইক-রিকশা বন্ধে কঠোর হওয়ার নির্দেশ সেতুমন্ত্রীর সুনামগঞ্জের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি সম্পর্কে জানা ছিল না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমপি রতনসহ ৬ জনের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, নিশ্চিত করল দুদক কাল আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী করোনাকালে নতুন করে যে দারিদ্রতা তৈরি হয়েছে, সেটা সাময়িক : পরিকল্পনামন্ত্রী সারাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন ঢাকা

ধর্মপাশায় বাল্য বিয়ের অভিশাপ থেকে রক্ষা পেল ২ কিশোরী

  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ১৭ মে, ২০২১, ৩.২৬ পিএম
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

ধর্মপাশা প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় একদিনে দুটি বাল্য বিয়ে পণ্ড করে দিয়েছে প্রশাসন। এসময় মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগপর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার জন্য অভিভাকরা লিখিতভাবে অঙ্গীকার করেন।

রোববার (১৬ মে) দুপুরে স্থানীয় একজনের মাধ্যমে বাল্য বিয়ের আয়োজনের খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ সেখানে গিয়ে অভিভাবকদের বুঝিয়ে বিয়ে দুটি বন্ধ করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মধ্যনগর ইউনিয়নের একটি গ্রামে আজ রোববার দুপুরে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীর (১২) সঙ্গে একই গ্রামের এক তরুণের (২২) বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিল। স্থানীয় এক যুবক বাল্যবিবাহ আয়োজনের খবরটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মুনতাসির হাসানকে অবগত করলে তিনি তাৎক্ষণিক মুঠোফোনে মো. মবিন উদ্দিন (৩৫) নামের এক শিক্ষককে বাল্যবিবাহটি বন্ধ করতে মুঠোফোনে নির্দেশ দেন। ওই শিক্ষক সকাল সাড়ে ১২টার দিকে বর ও কনের বাড়িতে যান।

এ সময় তিনি অভিভাবকদের ১৮ বছরের আগে কোনো মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার কুফল ও রাষ্ট্রীয় আইনে এ ধরণের বিয়ের স্বীকৃতি নেই, এমনটি বুঝিয়ে বলেন। ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েটিকে কোথাও বিয়ে দেওয়া হবে না বলে দুই পক্ষের লোকজন এ বিষয়ে লিখিতভাবে অঙ্গীকার করেন।

অন্যদিকে উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের একটি গ্রামে এক কিশোরীর (১৩) সঙ্গে পাশে মোহনগঞ্জ উপজেলার এক তরুণের (২৫) আজ রোববার (১৬ মে) বেলা দুইটার দিকে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিল। কনের এক বান্ধবীর কাছ থেকে খবর পেয়ে ধর্মপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খালেদ চৌধুরীকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

নির্দেশনা পেয়ে কনের বাড়িতে যান ধর্মপাশা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুমন চন্দ্র দাস। কনের বাড়িতে পুলিশ রয়েছে, এমন খবর পেয়ে বর ও বরযাত্রী কনের বাড়িতে যাননি। পরে ওই পুলিশ কর্মকর্তা বাল্যবিবাহের কুফল এবং এ নিয়ে আইনে কী বলা আছে, তা মেয়েপক্ষের অভিভাবকদের বুঝিয়ে বলেন। এরপর তাঁরা এই বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে সম্মত হন। অভিভাবকদের বুঝিয়ে বিয়ে দুটি বন্ধ করা হয়। এখানেও মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগপর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন অভিভাবকরা।

ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুনতাসীর হাসান বলেন, বাল্যবিবাহ বন্ধে উপজেলা প্রশাসন সব সময় তৎপর রয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে আজকেও দুটি বাল্য বিয়ে বন্ধ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!