1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

সাংবাদিকদের জবাই করার হুমকি হেফাজত নেতার: গ্রেপ্তার

  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ১২ এপ্রিল, ২০২১, ১২.১৭ এএম
  • ৩৫ বার পড়া হয়েছে

হাওর ডেস্ক:
ওয়াজ মাহফিলে প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের জবাই করতে হুমকি দিয়েছিলেন হেফাজত নেতা ওয়াসেক বিল্লাহ নোমানী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় ইস্যুকে পুঁজি করে বেশ কয়েকটি উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন, যা ধর্মীয় বিভেদ তৈরি করাসহ সাধারণ মানুষকে ভিন্ন পথে ধাবিত করার অপপ্রয়াস চালিয়েছে। প্রকাশ্যে সাংবাদিকদেন জবাই করার হুমকি দেওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
খেলাফত তথা ইসলামি শাসন ব্যবস্থা কায়েম হলে সব সাংবাদিককে জবাই করার ঘোষণা দেয়া কওমির ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
ওয়াসেক বিল্লাহ নোমানী নামের ওই শিক্ষক ইসলামপ্রতিষ্ঠার জন্য সহিংস হতে কর্মী-সমর্থকদের উত্তেজিত করে আসছিলেন।
তাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন
তিনি বলেন, ‘ওয়াসেক বিল্লাহ নোমানী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় ইস্যুকে পুঁজি করে বেশ কয়েকটি উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদান করেছেন, যা ধর্মীয় বিভেদ তৈরি করাসহ সাধারণ মানুষকে ভিন্ন পথে ধাবিত করার অপপ্রয়াস চালিয়েছে। তিনি বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে আছেন। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ পদক্ষেপ নেয়া হবে।’
মাওলানা নোমানীর উগ্র আক্রমণাত্মক বক্তব্যের একটি ভিডিও সম্প্রতি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। মাহফিলটি কবে কোথায় হয়েছিল, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া না গেলেও তার নাম, পরিচয় ও ঠিকানা পাওয়া যায়।

নোমানী ময়মনসিংহ নগরীর সানকিপাড়ার ফজলুল হক মারকাযুল উল্লুম মাদ্রাসায় বাংলা, ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে পড়ান। পাশাপাশি বিভিন্ন মাহফিলে ওয়াজ করেন।
এই মাদ্রাসার নূরানি বিভাগের শিক্ষক রাশেদ মাহমুদ জানান, নোমানীর বাড়ি ও জন্ম নেত্রকোণার পূর্বধলা উপজেলায়। তিনি ময়মনসিংহের সরকারি আনন্দমোহন কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর পাস করেছেন। ২০১২ সালে ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলিম হন। এরপর থেকে তিনি ওই মাদ্রাসায় শিক্ষক হিসাবে আছেন।
নোমানী সানকিপাড়ারই সরকার রোডের ১১০/২ নম্বর বাড়ি সুখ আলয় এ ভাড়া থাকেন।
মাওলানা শরীফ উদ্দিন জানান, মাওলানা নোমানী হেফাজতের বিভিন্ন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন। তবে জেলায় সংগঠনটির কোনো কমিটি নেই।

একই কথা বলেছেন মাওলানা নোমানীর মাদ্রাসার মোহতামিম আমিনুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘মাইমেনসিংয়ে তো হেফাজতের কোনো কমিটি নেই। তিনি হেফাজতের কোনো নেতা না আমার জানামতে।’

ধর্মীয় জলসায় মাওলানা নোমানীর বক্তব্য ভাইরাল হলে তার খোঁজে রোববার সানকিপাড়ার সেই বাসায় গেলে তার স্ত্রী বাড়ির ভেতর থেকে বলেন, ‘কারা জানি আসছিল, তাদের সাথে গেছে।’

নোমানীর বিষয়ে আরও জানতে প্রশ্ন করলে তার স্ত্রী বলেন, ‘আমি পর্দা করি, বাইরের কারো সাথে কথা বলি না।’

ময়মনসিংহে একটি গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে বলেছেন, নোমানীর সেই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তাকে তারাই নিয়ে এসেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!