1. haornews@gmail.com : admin :
  2. editor@haor24.net : Haor 24 : Haor 24
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

চোটজর্জর শ্রীলঙ্কার সামনে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১০.০৬ এএম
  • ১৯৮ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক ::
মরুর বুকে গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে লড়াই করতে হবে বাংলাদেশকে। এশিয়া কাপে তাই টাইগারদের পড়তে হচ্ছে কঠিন পরীক্ষার সামনে। বাংলাদেশ সময় আজ (শনিবার) বিকেল সাড়ে ৫টায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে যে পরীক্ষা শুরু হচ্ছে মাশরাফিদের।
বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা লড়াই দিয়েই পর্দা উঠছে এশিয়া কাপের ১৪তম আসরের। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের এই ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে মাছরাঙা ও স্টার স্পোর্টস ওয়ান চ্যানেলে।
এশিয়া কাপের গত তিন আসরে দুইবার ফাইনাল খেলা বাংলাদেশের প্রাথমিক লক্ষ্য জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা। এমনিতেই চন্ডিকা হাথুরুসিংহের বিদায়ের পর বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা, যেখানে ম্যাচের পড়তে পড়তে ছড়ায় রোমাঞ্চ। যদিও মাশরাফি এটাকে ‘যুদ্ধ’ মনে করছেন না। স্রেফ একটা ম্যাচ হিসেবেই দেখছেন। তার কথায়, ‘প্রতিটি ম্যাচেই জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ’। আজও লক্ষ্যটা তেমনই।
শনিবার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হওয়ার আগে দুই দল ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে ৪২ ম্যাচে, যেখানে দ্বীপ দেশটি জিতেছে ৩৬টিতে। অন্য দিকে এশিয়া কাপের মোট ১২বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র একটিতে। ২০১২ এশিয়া কাপে পাওয়া সেই জয়ের সুখস্মৃতি নিয়েই আজ মাঠে নামবে মাশরাফিরা।
দুবাইতে বাংলাদেশ কখনও ম্যাচ না খেললেও মধ্যপ্রাচ্যের শহরটির ঠিক গায়ে লাগানো শারজায় ১৯৯০ সালে অস্ট্রেলেশিয়া কাপে খেলেছিল প্রথমবার। ১৯৯৫ সালে একই ভেন্যুতে সর্বশেষ নেমেছিল এশিয়া কাপে। ২৩ বছর পর আবারও আমিরাতের মরুর বুকে খেলতে নামছে বাংলাদেশ। কন্ডিশনটা কঠিন হলেও এইসব নিয়ে একদমই ভাবতে চাইছে না বাংলাদেশ। দল না খেললেও বিচ্ছিন্নভাবে বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারের খেলার অভিজ্ঞতা আছে মরুর দেশে। সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালকে তো এই কন্ডিশনে বেশ অভিজ্ঞই বলা চলে।
কিন্তু যতই অভিজ্ঞ হোন, ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামা খুব সহজ কিছু হবে না। যে কারণে টস খুব গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হয়ে উঠবে। এ ব্যাপারে মাশরাফি বলেছেন, ‘টসে হার-জিত তো বলা যায় না। গরম অবশ্যই অনেক কিছু ম্যাটার করবে। পাকিস্তান-আফগানিস্তানের জন্য কিছুটা সহজ হবে, কারণ তারা সব সময় এখানেই খেলে থাকে। শ্রীলঙ্কাও কদিন আগে টেস্ট সিরিজ খেলে গিয়েছে এখানে। তারাও কিছু আন্দাজ করতে পারে। দল হিসেবে আমরা না খেললেও কয়েকজন খেলোয়াড়ের অভিজ্ঞতা আছে। তবে এইসব নিয়ে ভেবে লাভ নেই। আমাদের মাঠে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। আমরা সেখানেই মনোযোগ রাখছি।’
বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ম্যাচটি সম্পূর্ণ নতুন উইকেট খেলা হবে। প্রধান কিউরেটর টম লুমসডেন জানিয়েছেন, নতুন দুটি উইকেট বানানো হয়েছে। এশিয়া কাপের ম্যাচ এই দুটি উইকেটেই হবে। পুরো দল উইকেট দেখার সুযোগ না পেলেও মাশরাফি ট্রফি উন্মোচনের কারণে খানিকটা উইকেট দেখার সুযোগ পেয়েছেন। উইকেট নিয়ে মাশরাফির বক্তব্য, ‘আমিই কেবল উইকেট দেখতে পেরেছি। আর কারও সুযোগ হয়নি। উইকেটটা খুব ভালো মনে হচ্ছে।’
ক্রিকেটে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা লড়াই এখন অন্যরকম উত্তেজনা ছড়ায়। সর্বশেষ নিদাহাস টি-টোয়েন্টি সিরিজ কিংবা এ বছরের শুরুতে ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজ সেটিরই সাক্ষ্য দেয়। বাংলাদেশের সাবেক কোচ হাথুরুসিংহের লঙ্কান ড্রেসিংরুমে উপস্থিতির প্রসঙ্গটি উঠে আসে বারবার। মাশরাফি অবশ্য সাবেক কোচের বিষয়টি একপাশে ঠেলে দিয়ে বলেছেন, ‘আমাদের প্রতিপক্ষ ভারত কিংবা পাকিস্তান হলেও জেতার আকাঙ্ক্ষা একই রকম থাকতো। আমরা জানি যে কাল (শনিবার) অনেক বড় ম্যাচ। হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ আছে। কিন্তু প্রথম ম্যাচে ভালো কিছু করতে পারলে আমরা এগিয়ে যাব। সুতরাং আমাদের মূল লক্ষ্য জয় নিয়ে মাঠ ছাড়া। আর আমাদের ফোকাস সেই দিকেই।’
শ্রীলঙ্কার সময়টা বেশ ভালোই যাচ্ছে। কিছুদিন আগে ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকাকে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছে তারা। ওয়ানডে সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে হারলেও একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি নিজেদের করে নিয়েছে তারা। যদিও এশিয়া কাপের আগে চোট জর্জরিত দলটি। আরব আমিরাতে যাওয়ার আগেই ছিটকে যান টেস্ট অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল। আসর শুরুর মাত্র একদিন আগে ছিটকে গেছেন অলরাউন্ডার দানুশকা গুনাথিলাকা। এদিকে সন্তান সম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে প্রথম দুই ম্যাচে থাকবেন না আকিলা ধনাঞ্জয়া।
চোট সংক্রান্ত সমস্যা আছে বাংলাদেশেরও। আঙুলের চোটে সাকিব এশিয়া কাপ খেলেবেন কিনা, তা নিয়ে ছিল সংশয়। শেষ পর্যন্ত তিনি খেলছেন। সেই সঙ্গে তামিমের খেলা নিয়ে শঙ্কা থাকলেও এই ওপেনারকেও পাচ্ছে বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের তাজা স্মৃতি বাংলাদেশের, যেখানে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন সাকিব-তামিম। এশিয়া কাপেও এই দুজনের দিকে তাকিয়ে থাকবে গোটা দেশ।
বাংলাদেশের একাদশ ম্যাচের ঠিক আগের মুহূর্তে চূড়ান্ত হবে। যদিও তামিমের সঙ্গে ওপেনার হিসেবে লিটনকেই দেখা যাওয়ার কথা। নিষিদ্ধ হওয়া সাব্বির রহমানের জায়গায় মোহাম্মদ মিথুন কিংবা আরিফুল হক জায়গা পাবেন। সম্ভাবনায় এগিয়ে মিথুন। অধিনায়ক মাশরাফির সঙ্গে রুবেল ও মোস্তাফিজকে নিয়ে তিন পেসার নিয়েই খেলার সম্ভাবনা বাংলাদেশের। একাদশ নিয়ে মাশরাফি বলেছেন, ‘আমরা যে গ্রাউন্ডে খেলব, সেখানে অনুশীলনের সুযোগ অত নেই। কাজেই পুরো দল হিসেবে ওখানে যেতে পারিনি। যতটুকু দেখেছি আমরা চিন্তা-ভাবনা করেছি, আশা করি সেরা একাদশ নিয়েই মাঠে নামব।’
২৩ বছর পর মরুর দেশে আবার বাংলাদেশের ম্যাচ। দুবাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলা দিয়ে শুরু নতুন মিশন। যে মিশনে লক্ষ্য একটাই- ২০১২ ও ২০১৬ সালের দুঃখ তাড়িয়ে শিরোপা জয়ের উল্লাসে মাতা।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazarhaor24net
© All rights reserved © 2019 haor24.net
Theme Download From ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!